টাকা ইনকাম করার সহজ উপায় বাংলাদেশে

অনলাইন ইনকাম

0

টাকা ইনকাম করার সহজ উপায় বাংলাদেশে অনেক। যারা তরুণ, উদ্যেগি, চাকরি দিতে চান, স্বাধীন ব্যবসায়ি হতে চান এবং ফ্রিল্যান্সার হিসেবে নিজেদের প্রতিষ্ঠিত করতে চান তাদের জন্য সোজা কথা হল কিছু কোর্স করুন আর ফ্রিল্যান্সার হয়ে নিজেই নিজের বস হোন।

বাছাইকৃত নিচের কোর্সসমূহ ২/৩দিনে করে প্রাকটিস করুন। আর কটা দিন অবজারভ করুন কাজ দাতা প্রতিষ্ঠানের কার্যাবলী(মার্কেট প্লেস)। শিখতে থাকুন কিভাবে কাজ পেতে হয়।

এই দুই লাইনের কথাগুলোকে মূল্য দিন, দেখবেন স্বপ্নের অনলাইনে আয় বা ইনকাম আপনার কাছে ধরা দেবে ধীরে ধীরে। জানতে হলে পড়তে থাকুন-

কিভাবে টাকা ইনকাম করব

অনলাইনে ইনকাম করার উপায় ২০২২,
অনলাইন ইনকাম মোবাইল দিয়ে ২০২২,
ঘরে বসে মোবাইলে আয়,
অনলাইনে ইনকাম করার উপায় ২০২২,
ছাত্রদের জন্য অনলাইনে আয়,
কিভাবে টাকা ইনকাম করা যায় ২০২২,
অনলাইনে কাজ

ফ্রিল্যান্সিং-২০২২ কিভাবে শিখবো, পূর্ণাঙ্গ গাইড লাইন

 

ছাত্রদের জন্য অনলাইনে আয়

লেখা পড়ার পাশাপাশি ভিডিও এডিটিং শিখে আপনি অনলাইনে ইনকাম করতে পারেন। তরুনরা রীতিমতো ধৈর্য্য ধরে শিখছে এটি। কারণ এর ভবিষ্যত উজ্জ্বল। এ ছাড়া ঘরে বসে নিজস্ব ব্যবসা বা ফ্রিল্যান্সার হিসেবেও কাজ করতে পারেন। আর সফটওয়্যার ডেভেলপমেন্ট ফার্ম, বিজ্ঞাপন ফার্ম, টেলিভিশন, ইউটউভ চ্যানেল এবং ওয়েবসাইট পরিচালনাকারীরা তো বসেই আছে আপনার মত ভিডিও এডিটিং কাজ জানা লোকের জন্য।

বাংলাদেশে এখন প্রায় ৪০-৪২টি টিভি চ্যানেল, কয়েক হাজার আইপি টিভি, সহস্রাধিক অনলাইন নিউজ পোর্টাল রয়েছে। সরকারি অনুমোদন প্রাপ্ত, অনুমোদন পায় নি এমন সবগুলো টিভি চ্যানেলেই প্রয়োজন দক্ষ ভিডিও এডিটরের। টিভি চ্যানেলগুলোতে সংবাদের পাশাপাশি অসংখ্য অনুষ্ঠান, নাটক, ম্যাগাজিন, বিজ্ঞাপন প্রচারিত হয়। ফুলটাইম-পার্টটাইম দু’ভাবেই ভিডিও এডিটর হিসেবে কাজ করতে পারবেন। আয়ও মন্দ না।

বাংলাদেশে স্যাটেলাইট টিভি চ্যানেল, আইপি টিভি, ইউটিউভ টিভি, ভিডিও নিউজ দিন দিন বাড়ছে। এক গবেষণায় দেখা গেছে, মানুষ এখন খবর অনেকক্ষণ বসে টিভিতে দেখতে চায় না। সোশ্যাল মিডিয়ায় পছন্দের ভিডিও নিউজটি দেখে ফেলে। ফলে আগামী দিনে নিউজ পোর্টাল হবে ভিডিও নিউজ ও পডকাস্ট ভিত্তিক।

সারা দুনিয়ায় ভিডিও এডিটরদের কদর বাড়ছে ব্যাপকভাবে। দেশের কথাই ধরুন- প্রতিটি টিভি চ্যানেলে মোটামুটি ১৫ থেকে ২০ জন ভিডিও এডিটর ও সহকারিকে কাজ করতে হয়। সেটি জানলে হয়ত চাকরি পাওয়ার সম্ভাবনাটা অনুধাবন করা সহজ হবে। একটা চ্যানেলে ৫ ধরনের ক্যাটাগরিতে ভিডিও এডিটরগণ কাজ করেন।

ভিডিও এডিটরগন কত আয় করেন

ক্যাটাগরিগুলো হল:
১. ভিডিও এডিটর ইনচার্জ, ২. সিনিয়র ভিডিও এডিটর, ৩. ভিডিও এডিটর, ৪. জুনিয়র ভিডিও এডিটর এবং ৫. শিক্ষানবিশ ভিডিও এডিটর।

একজন ভিডিও এডিটর এর মাসিক বেতন ২০ হাজার টাকা থেকে ৮০ হাজার টাকা পর্যন্ত হয়ে থাকে।

মাল্টিমিডিয়া জগতে শিক্ষাগত যোগ্যতার চেয়ে দক্ষতা ও অভিজ্ঞতাকে প্রাধান্য দেয়া হয়।

ভিডিও এডিটিংয়ের কাজ শিখুন। এটি নিরাপদ ও নিশ্চিত বিনিয়োগ। বেকারত্ব, হতাশা, দরিদ্রতা অল্প দিনে দূর হয়ে যাবে।

ভাইরাল হয় বেশি ভিডিও, ছবির চেয়ে

মোবাইল ফোনে তোলা ছবি যেখানে হাজারো কথা বলতে পারে, একই ফোনে তোলঅ ভিডিওগুলি সেখানে লক্ষ লক্ষ কথা বলতে পারে। ছবির বিপরীতে, ভিডিও অনেক বেশি মানুষের মনকে কে স্পর্শ করে এবং অন্য কোনও উদ্দীপনার মতো আবেগকে বিদ্ধ করতে পারে। ভিডিও যে কারো আবেগ-অনুভূতিতে ব্যাপক সাড়া ফেলে। এমনকি ভিডিও যে কাউকে এক মুহুর্তে হাসাতে, কাঁদাতে এমনকি রাগাতেও পারে। তাই ভিডিওর সাথে ছবি তুলনা হয় না।
এবার বুঝুন ভিডিও এডিটিং করার কাজটা কত গুরুত্বপূর্ণ।মনে রাখবেন- সাধারণ ভিডিও মানুষকে তেমন আকর্ষন করে না। কারণ মানুষ সব সময় সৌন্দর্য্য ও গোছানো জিনিসকে পছন্দ করে।

একদম ফ্রিতে ভিডিও এডিটিং শিখতে এই লিংকে ক্লিক করুন। 

 

এবার আসুন বাংলাদেশের টিভি চ্যানেল, সংবাদপত্র, মিডিয়া, অনলাইন নিউজপোর্টাল ছাড়াও বিদেশি বায়ারদের নিকট থেকে ভিডিও এডিটিংয়ের কাজ পাবেন যেখানে—–

পড়ুন ক্লিক দিয়ে নিচের লিংকটি

আউটসোর্সিং এর সেরা ৫ ওয়েবসাইট(২০২০)

ছাত্রজীবনে আয়, অনলাইন ইনকাম কাজ, অনলাইনে সহজে টাকা ইনকাম

করার জন্য এই সব ফ্রিল্যান্সিং জব সাইট খুব গুরুত্বপূর্ণ।

 

বন্ধুরা আজই ভিডিও এডিটিংয়ের কাজটি শিখতে মনস্থির করুন।কে বলে টাকা ইনকাম করার সহজ উপায় বাংলাদেশে নেই। এর চেয়ে আর কি সহজ কাজ। অনলাইন ইনকাম। আশা করি  আর ভাবতে হবে না কিভাবে টাকা ইনকাম করব–এটা নিয়ে।  ভাল লাগলে শেয়ার করুন এই আর্টিকেল।অনুরোধ।

Leave A Reply