গুগল র‌্যাংকিং ফ্যাক্টর : কী ও কীভাবে

ওযেবসাইট র‌্যাংকিং

0

সবাই তাদের ওয়েবসাইটকে সার্চ রেজাল্টের প্রথমে দেখতে চায়। যে সব সাইট সার্চ রেজাল্টের প্রথমপৃষ্টায়,প্রথমদিকের তালিকায় থাকে সেগুলোতে মানুষ বেশি ভিজিট করেন। আর সে কারণে কোন ওয়েবসাইটকে গুগলের সার্চ রেজাল্টে আনতে সবাই দিবারাত্র প্রচেষ্টা করেন।

 

গুগল বলেছে যে ওয়েবসাইটগুলোর র‌্যাং করার সময় এর অ্যালগরিদম ২০০ টিরও বেশি সংকেত বিবেচনা করে। কিন্তু গুগল সেই সব ২০০+ র‍্যাঙ্কিং ফ্যাক্টরের তালিকা দেয় না। কোথাও নয়।

যারা ২০০ টি গুগল র‌্যাংকিং ফ্যাক্টর জানেন বলে দাবি করেন তাদের অধিকাংশই  মিথ্যা বলছেন – হয় আপনার কাছে অথবা নিজের কাছে।

আপনি যদি কখনও ভেবে দেখে দেখেছেন, গুগল র‍্যাঙ্কিং ফ্যাক্টর কি এবং কি নয়?

গুগল র‍্যাঙ্কিং সিগন্যাল সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে অনেকে চেষ্টা করছেন।বিশ্ব ব্যাপি এসইও মাস্টাররা গবেষণা অব্যাহত রেখেছে।

 

সার্চ ইঞ্জিন জার্নাল টিম ২০০ ঘন্টারও বেশি সময় ব্যয় করেছে এবং ৪৪ টি সিগন্যালের ওপর প্রাপ্ত গবেষণার ফলাফলগুলো সংকলন করেছে, যা নিশ্চিতভাবে গুগল র্যাঙ্কিং ফ্যাক্টর।

গুগল র‌্যাংকিং ফ্যাক্টরস: ফ্যাক্ট বা ফিকশান

রং‌্যাকিং সংকেতগুলির বৈধতার বিষয়ে সার্চ ইঞ্জিন জার্নাল টিম অনুমান নির্ভর নয়, ফ্যাক্ট বের করার চেষ্ঠা করেছে। যেমন, পেটেন্ট থেকে প্রমাণ, উৎস থেকে নিশ্চিতকরণ এবং তৃতীয় পক্ষের উৎস।

Ranking ফ্যাক্টরগুলি পারস্পরিক সম্পর্ক খুব আকর্ষণীয়।সার্চ ইঞ্জিন জার্নাল টিম

Ranking Factor Meter দ্বারা –সিগন্যালগুলির মধ্যে কোনটি কোন শ্রেণীতে পড়ে তা সনাক্ত করতে চেয়েছে সার্চ ইঞ্জিন জার্নাল টিম ও তাদের সহযোগিরা। তারা একটি গাইডলাইন তৈরি করে যেখানে দেখানো হয় কোনগুলো Ranking ফ্যাক্টর আর Ranking ফ্যাক্টর নয়।

নিচের বিষয়গুলোকে গবেষণাটিম Ranking ফ্যাক্টর হিসেবে চিহিৃত করেছে—

 

০০১.৩০১রিডাইরেক্ট

০০২. ৪০৪ এবং সফট ৪০৪পেজেস

০০৩.এডসেন্স ব্যবহার

০০৪. অলটেক্স

০০৫.এমপি

০০৬.এ্যাংকট টেক্স

০০৭.অথরশিপ

০০৮.বিবিবি রেটিং

০০৯.বাউন্স রেট

০১০.ব্রেডক্রাম্ব নেভিগেশন

০১১.কেনোনিকালাইজেশন

০১২.ক্রমবুকমার্ক

০১৩.ক্লিক ডেপথ

০১৪.ক্লিক-থ্রো রেট

০১৫.কো-সাইটেশন

০১৬.কোড টু টেক্স রেসিও

০১৭. কন্টাক্ট ইনফরমেশন

০১৮.কনটেন্ট

০১৯.কনটেন্ট লেনথ

০২০. কোর ওয়েব ভাইটাল

০২১.ক্রল এরর এবং ক্রল বাজেট

০২২.ডিপ লিংক রেসিও

০২৩.ডিরেক্ট ট্রাফিক

০২৪. ডিসএভো টুলস

০২৫.ডোমেইন এইজ

০২৬.ডোমেইন অথরিটি

০২৭.ডোমেইন হিস্টরি

০২৮.ডোমেইন নেম

০২৯. দুয়েল টাইম

০৩০. ই-এ-টি(এক্সপারটাইস-অথরিটি- ট্রাস্ট)

০৩১. ডট এডু লিংক

০৩২. ফাস্ট লিংক প্রাইয়োরিটি

০৩৩.ফ্রেস কনটেন্ট

০৩৪.গুগুল এডস

০৩৫.গুগল এ্যানালাইটিক্স

০৩৬. গুগল সার্চ কনসোল

০৩৭.গুগল সার্চ কোয়ালিটি ইভ্যালুয়েটর গাইডলাইন

০৩৮. ডট গভমেন্ট লিংক

০৩৯. এইচ-১

০৪০.এইচ২-এইচ-৬

০৪১.এইচটিএমএল লিস্ট

০৪২. এইচটিটিপিএস

০৪৩. ইমেজেস(নাম্বার অফ)

০৪৪. আইপি এড্রেস

০৪৫. কি ওয়ার্ড ডেনসিটি

০৪৬.কি ওয়ার্ড প্রমিনেন্স( Prominence)

০৪৭. কি ওয়ার্ডস্টেমিং( Stemming)

০৪৮. কিওয়ার্ড স্টাফিং

০৪৯. ভাষা

০৫০. লিংকস স্টেবিলিটি

০৫১. লিংকস ভেলুসিটি

০৫২. লিংকস((Contextual)

০৫৩. লিংকস(Inbound)

০৫৪. লিংকস(Internal)

০৫৫.লিংক(নোফলো)

০৫৬.লিংকস(আউটবাউন্ড)

০৫৭. লিংকস(পেইড)

০৫৮.লিংকস(Sitewide)

০৫৯.লোকাল সাইটেশন(এনএপি)

০৬০. এলএসআই(Latent Semantic Indexing)

০৬১. ম্যানুয়েল এ্যাকশান

০৬২.মেটা ডেসক্রাইপশান

০৬৩.মেটা কিওয়ার্ডস

০৬৪.মোবাইল ফ্রেন্ডলিনেস

০৬৫.এমইউএম

০৬৬.পেজ স্পিড

০৬৭.ফিজিক্যাল প্রক্সিমিটি টু সার্চার

০৬৮.র‌্যাংক ব্রেইন

০৬৯.ডিপ লিংক রেসিও

০৭০. রিডিং লেভেল

০৭১.রিকনসিডারেশন রিকোয়েস্ট

০৭২.রেলিভেন্স,ডিসটেন্স এন্ড প্রমিনেন্স

০৭৩. রিভিউ সেন্টিমেন্ট

০৭৪. স্কিমা মার্কআপ

০৭৫.সোম্যাল সিগন্যাল এন্ড শেয়ার

০৭৬.স্পেলিং এন্ড গ্রামার

০৭৭.সাবডোমেইন এন্ড সাব ডাইরেক্টরিজ

০৭৮.সিন্ডিকেটেড কন্টেন্ট

০৭৯.টেবড কন্টেন্ট( Tabbed Content)

০৮০.টেক্সফরমেটিং

০৮১.টিএফ-আইডিএফ

০৮২. টাইটেল ট্যাগ

০৮৩. ইউআরএলস

০৮৪.ইউজার সার্চ হিস্টরি

০৮৫.ইউজার জেনারেটর কন্টেন্ট

০৮৬.ওয়েবসাইট কোয়ালিটি স্কোর

০৮৭. হুইজ

০৮৮.ডব্লিউ ডব্লিউডব্লিউ বনাম নন ডব্লিউ ডব্লিউডব্লিউ

০৮৯.এক্সএমএল সাইটম্যাপ

গবেষণা দলটি বলেছে উপরের ফ্যাক্টরগুলো নিশ্চিত গুগল র‌্যাংকিং ফ্যাক্টর তবে গুগল বা সংশ্লিষ্ট কেউ নিশ্চিত করে নি। ৮৮টি চাপ্টারের ৬২৫ পাতার গবেষণা প্রতিবেদনটি সম্পর্কে সার্চইঞ্জিন জার্নাল প্রতিনিয়ত প্রশংসা কুড়িয়ে চলেছে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.