নিউজ পোর্টাল এসইও কী

গুগলের সার্চ রেজাল্ট,গুগল নিউজে পোস্ট শো করতে

0

ইন্টারনেটের সুবিধার বদৌলতে দেশে বিদেশে বাংলা ভাষার বহু নিউজ পোর্টাল পরিচালিত হয়। প্রতিদিন  প্রতিমুহুর্তে নিউজ আপডেট হয়-এমন প্রতিযোগী পোর্টালের সংখ্যা কম নয়।সব পোর্টাল এক ধরনের নয়। কিছু কিছু ক্যাটাগরি বা বিষয় ভিত্তিক। টেক নিউজ, খেলার নিউজ ও বিনোদন ভিত্তিক। এসব বাংলা নিউজ ২৪ পোর্টাল নিয়মিত আপডেটও হচ্ছে। কিন্ত কিছু পোর্টাল যথেষ্ট ভিজিটর পাচ্ছে না।স্থানীয়, জাতীয় বা আন্তর্জাতিক পরিমন্ডলের কোনটিতে জনপ্রিয় নয়। জনপ্রিয় করতে না পারা, বা ভিজিটর আকর্ষন করতে কম পারার পেছনে রহস্য কী?

নিউজ পোর্টাল এসইও

এসইও-সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন।সাদামাঠা নিউজ আপলোড বা অনএয়ার করলেন, তা হবে না। নিউজ পোস্টগুলোকে যথাযথভাবে গুছিয়ে আপলোড করতে হবে। পাশাপাশি নিউজ পোর্টাল সাইটকে সার্চ ইঞ্জিন ফ্রেন্ডলি করতে হবে। যাতে করে প্রতিটি পোস্ট তারা ডিটেক্ট করতে পারে।

কিছু এডিটর-ইন-চিফ স্পাইডারম্যানের ছবি চান। অন্যরা কেবল তাদের সংবাদের যতটা সম্ভব প্রচার চায়। আপনি যে ধরনেরই নিউজ পোর্টাল চালান না কেন , এ কথা অনস্বীকার্য যে, আপনি যদি একটি নিউজ পোর্টাল চালান, তাহলে অনলাইন সাংবাদিকতার জগৎ জয় করার জন্য এসইও এর প্রয়োজন।
এই পোস্ট, যা নিউজ পোর্টালের জন্য এসইও এর দিক নির্দেশনা বর্ণনা করে, সেই লটারি কার্ড যা নিশ্চয়ই আপনি এতদিন ধরে খুঁজছেন।

নিউজ পোর্টালের বা  ওয়েবসাইটের এসইও করার জন্য নিচের ছয়টি ধাপ অনুসরণ করুন।

০১. আপনার সাইট ব্রাউজ করা সহজ করুন।
০২. আপনার নিউজ সাইট অপটিমাইজ করুন। কীওয়ার্ড খুঁজুন, সর্বদা! শেয়ার করা যায় এমন ছবি ব্যবহার করুন। …
০৩. আপনার সাইট সব সময় যেন চালু থাকে। আপনার সাইট লোডিং স্পিড কমান।
০৪. প্রাসঙ্গিক লিঙ্ক তৈরি করুন।
০৫. সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করুন। সর্বত্র উপস্থিত থাকুন। …
০৬. Google News- এ বৈশিষ্ট্যযুক্ত হন।

এবার আসা যাক বিস্তারিত আলোচনায়।

০১.আপনার সাইট ব্রাউজ করা সহজ করুন।

পৃথিবীতে প্রতিদিন ঘটে যাওয়া প্রতিটি আগ্রহপূর্ণ ঘটনাই কিন্ত এই নিউজ সাইটের পোস্ট হতে পারে। প্রতিদিন ২০/৩০/৪০টি যে পোস্ট সমূহ সম্পাদনা করে নিউজ সাইটে আপলেঅড দেয়া হয় সেগুলো একটু গুছানো এবং এসইও ভিত্তিক হওয়া বাঞ্চনীয়।

কোন নিউজ সাইট যখন কোন বেশি ভিজিটর পায় না, সার্চ ইঞ্জিনগুলোতে উপরের দিকে সাইটের নিউজ দেখা যায় না,মানুষ নেটে সাইট খুজে পেতে ব্যর্থ হয়, তখন বুঝতে হবে, এই সাইট নিউজ পোর্টাল টি সঠিকভাবে সংগঠিত না। অর্থাৎ সাইটে কোন এসইও কাজ করা হয় না।

যতই ভাল ভাল নিউজ দিন সাইটে,যদি এসইও করা না হয়,তাহলে নিউজ পোর্টাল কখনও গুগল বা অন্য সার্চ ইঞ্জিনের প্রথম পাতায় সার্চ ফলাফলে দেখা যাবে না। সাইটের র‌্যাংক সবসময় নিচের দিকে থাকবে।
তাই নিউজ পোর্টালটি সহজে উপর থেকে নিচ, এবং নিচ থেকে উপরের দিকে উঠা নামা করার বিষয়টি নিশ্চিত করতে হবে।

এই জন্য নিচের নিচের ধাপগুলো অনুসরণ করতে হবে।

সার্চবার:

যে সমস্ত সাইটে প্রতিদিন অনেকগুলো নিউজ পোস্ট হয় সেগুলোতে অবশ্যই সার্চ বার থাকতে হবে।এটি একজন পাঠককে দ্রুতকোন পোস্ট খুঁজে পেতে সাহায্য করে।
পেজিনেশন বা ইনফিনিট স্ক্রল :প্রতিটি নিউজের ক্যাটাগরি থাকতে হবে। যাতে পাঠক সংশ্লিষ্ট নিউজ খুঁজে নিতে পারে।

ট্যাগস:

 

সংশ্লিষ্ট একই বিষয়ের ওপর নিউজ(যেমন-আফগানিস্তান, রোহিঙ্গা)হলে সব সময় একটি কমন ট্যাগ ব্যবহার করবেন। এটা খুব ভাল এসইও। ট্যাগ পেইজে আসা নিউজগুলোকে এ্যাংকর টেক্স হিসেবে সাইটের সাথে লিংক করে দেবেন।
ব্রেডক্রাম্বস :

 

সহজ ভাবে বলতে হয় একটি মেনুর অধীনে সাব মেনু।উদাহরণস্বরূপঃ প্রচ্ছদ > বিশ্ব নিউজ > মিয়ানমার।

ব্রেডক্রাম্বস নিউজ পোর্টালের কিওয়ার্ড এবং পোস্টগুলো সার্চ ইঞ্জিনে র্যাং ক করার জন্য সাপোর্ট দেয়।
আপনাকে দেখাবে আপনি কোন ক্যাটাগরিতে রয়েছেন।আপনি যদি আপনার দেখা আগের পেজটিতে যেতে চান তাহলে সহজেই ব্রেডক্রাম্বস থেকে আপনার আগে পেজটিতে ফিরে যেতে পারবেন।ব্রেডক্রাম্বস-একটি লাইন-দুটি লিংক।একটি লিংক হোম পেজের সাথে অপরটি নিউজ ক্যাটাগরির সাথে। যাতে পাঠক সহজে দ্রুত ব্রাউজ করতে পারে।

সাইট ম্যাপ বানান:

আপনার সব নিউজ পোস্ট ইনক্সেড হতে হবে গুগলে।অথবা সার্চ ফলাফলে দেখাতে হবে।সাইটম্যাপ খুব গুরুত্বপূর্ণ। সাইটে কি আছে কি নেই সব একনজরে দেখাবে গুগল যদি সাইট ম্যাপ নিয়মিত আপডেট থাকে।
লিংক করুন প্রতিটি পোস্টের সাথে একই বিষয়ের অপরটির। অবশ্যই যে পোস্টের বেশি ভিউ হয়েছে তেমন পোস্টগুলো লিংক করার চেষ্ঠা করবেন। পাঠক যখন একটি নিউজ পড়া বা দেখা শেষ, তখন সে লিংক পোস্টের বিষয়ে আগ্রহী হতে পারে। এটা পাঠককে সাইটে ধরে রাখার কৌশল। নিউজে এমন হেডলাইন দেবেন, পাঠক যাতে ক্লিক করে পোস্ট পড়তে বাধ্য হন। এতে বেশি ভিউ হওয়া পোস্টগুলোর অনেক গুরুত্ব বেড়ে যায় গুগলের কাছে।

০২. অপটিমাইজ করুন নিউজ পোর্টাল ওয়েবসাইটকে

নিউজ সাইটের জন্য অনপেইজ এসইও হল সোজাসাপটা।আপনার প্রতিদিনের পোস্টগুলো হতে হবে হাই কোয়ালিটি সম্পন্ন।যাতে পাঠক পড়তে আগ্রহী হয় এবং সার্চ ইঞ্জিনও ইউনিক পোস্ট পায়।আসলে নিউজ পোর্টালগুলো হল বড় বড় ব্লগ।
বন্ধুরা আপনার কী মনে পড়ে কিভাবে ব্লগ অপটিমাইজ করতে হয়? জানতে এই লিংকে ক্লিক করুন

এসইও সম্পর্কে খবু ধারণা না থাকলেও সাইট কীভাবে অপটিমাইজেশন করতে হয় সেটা এই পোস্ট থেকে মোটামুটি জেনে যাবেন।

কীওয়ার্ড খুঁজুন, সর্বদা!

“লোহা গরম হলে পিটাতে হয়” অন্য কোন কিছুর মতো খবরের ক্ষেত্রে একথাটি প্রযোজ্য। আপনাকে দ্রুত কাজ করতে হবে, অথবা অন্য সাইটগুলি প্রথমে রিপোর্ট করবে এবং আপনাকে তাদের নিউজ থেকে কপি পেস্ট করতে হবে। আপনার খবরের পোস্টগুলো দ্রুত অপ্টিমাইজকরে দেয়ার চেষ্টা করুন|।
দ্রুত নির্বাচন করুন পোস্ট কীওয়ার্ড, ট্যাগ,ম্যাটা ডেসক্রিপশান।Yoast SEo যদি ব্যবহার করেন তাহলে এ সবকাজ অনেক সহজ হবে আপনার জন্য।

প্রয়োজনে কিছু কিছু নিউজ পোস্টের জন্য আগে থেকে সবকিছু ঠিক করে রাখুন। তথ্য পাবার সাথে সাথে যেন পোস্ট পাবলিশ বা অনএয়ার করা যায়। মনে রাখবেন নিউজ পোস্টগুলো যার আগে যে পাবলিশ করে সোশ্যাল মিডিয়ায় দিতে পারে তার পোস্টের তত মূল্য বেড়ে যায়।

কীওয়ার্ড বসাতে হবে যেখানে:

পোস্ট হেডলাইন: পোস্টের কী ওয়ার্ড থাকতে হবে।এমন হেডলাইন দিতে হবে যাতে নজর কাড়ে,অবশ্যই যাতে পাঠক ক্লিক দেন।

মেটা ডেসক্রিপশান: এটা হেডলাইনকে সাপোর্ট দেয়।এই ঘরটি বাছা বাছা কী দিয়ে সাজান।

এইচ১-এইচ৪ হেডিংস: এসবগুলো গুগল এবং পাঠককে আর্টিকেল সম্পর্কে স্বচ্ছ ধারণা দেয়।সাব হেডিং বলতে পারেন। বড় কীওয়ার্ড বলা যায়।

ইমেজ ফাইল নেম: ছবি ও এএলটির নাম দিতে হবে।ছবির সঠিক নাম দেবেন। যাতে অন্যকেউ সার্চ দিলে আপনার ছবি গুগল দেখাতে পারে।

এ্যাংকর টেক্স অব লিংকস টু আদার পোস্ট: বর্তমান পোস্টে অন্য গুরুত্বপূর্ণ পোস্টের সাথে লিংক বসিয়ে দেবেন। যাতে পোস্টগুলো দুটোই উপকৃত হয়।

শেয়ার করা যায় এমন ছবি পোস্টে ব্যবহার করুন:

নিউজ সাইটের পোস্ট আর সাধারণ ব্লগের পোস্ট এর মধ্যে অনেক বেশি পার্থক্য রয়েছে।মানুষ প্রতিনিয়ত গুগলে ছবি খুঁজে। ছবির সাইজ ও ওজন এমন কম হওয়া উচিত যাতে এটি খুব দ্রুত ওয়েবসাইটে লোড হতে পারে।

ছবি নির্দিষ্ট ফরম্যাটে ব্যবহার করুন।প্রস্থ ও উচ্চতা ঠিক রেখে নিউজ সাইটের পেইজে ফিট রাখুন।সব সময় নিজেদের তোলা ছবি ব্যবহার করার চেষ্ঠা করুন।ছবি কপি করে হুবুহু আপলোড করে দেবেন না।

কপি নিউজ একদম পরিহার করুন:

১০০% কপি নিউজ বা চুরি করা নিউজ একদম পোস্ট করা যাবে না নিউজ সাইটে।গুগল সব প্রকাশিত নিউজ চেক করে ফিল্টারিং করে এবং সার্চ রেজাল্টে ফলাফল দেখায়।কপি করা কোন পোস্ট অর্গানিক পাঠক পাবে না। অন্য সাইট থেকে নিয়ে নিউজ পোস্ট দেবেন না। তবে একেবারে নিত্য নতুন, আনকমন ইউনিক পোস্ট লেখার বিষয় সবসময় পাবেন কই। সবার আগে কোন ঘটনার খবর পেলে নিউজ পোস্ট দিতে পারলে সেটা হবে ইউনিক পোস্ট। নিউজ সাইটে অল্পস্বল্প কপি করতে হয়, তবে নিজের মত করে এডিট করে ইউনিক করে নিতে হবে।

সেটআপ করুন ৩০১রিডাইরেক্টস লিডিং টু দি অরিজিনাল পোস্ট/আর্টিকেল
ব্যবহার করুন rel=”canonical” attribute to point to the original
এবং পোস্ট সম্পর্কে আরেকটু কথা বলতে হয়, কোন নিউজ আপডেট করতে হলে মূল নিউজের ওপরেই করবেন, নতুন করে একই বিষয়ের বা হেডলাইনের নতুন পোস্ট দেবেন না।

০৩. আপনার সাইটকে সর্বদা চালু রাখুন

আপনি যদি আপনার নিউজ সাইটের পাঠকদের দেশের ও বিদেশের বড় বড় ঘটনাগুলো সম্পর্কে প্রতিনিয়ত আপডেট রাখতে চান তাহলে আপনাকে ২৪ঘন্টা/৭দিন ঘড়ির কাটার মত নিউজ পোস্ট দিয়ে সাইট সার্বক্ষণিক আপডেট রাখতে হবে। প্রতিটি ত্রুটি বিচ্যুতি আপনার সাইটের পাঠকদের ওপর ক্ষুদ্রক্ষুদ্র প্রভাব ফেলে,তাদেরকে এটা ভিন্ন দিকে মনোনিবেশে আকর্ষন করবে। সে জন্য আপনাকে ওসব খুটিনাটি বিষয় চেক ও সমাধানে সার্বক্ষণিক নজরদারি করতে হবে।

আপনার সাইটের লোডিং স্পিড উন্নত করুন:

দ্রুতগতি সব সময় শরীরে গরম আনে। তেমনি ফাস্ট নিউজ বা,প্রথম সংবাদই হল হট নিউজ।সবার আগে পাঠকদের সর্বশেষ ঘটনা সম্পর্কে জানতে দিন।
হোক সেটা কথায় বা সংখ্যায়।ব্রেকিং নিউজ দিন। যেমন-করোনায় গত ২৪ঘণ্টায় ৫৬জনের মৃত্যু
গুগল র্যাংথকিংয়ের জন্য দরকার যার আগে যে করতে পারে।ছোট ছোট অনেক কাজ করার চেয়ে সাইটের লোডিং স্পিড অনেক বড় বিষয়।সাইট যদি খুলতে দেরি করে তাহলে অনেকে বিরক্ত হয়ে অন্য সাইটে চলে যায়। এভাবে হারাতে হয় পাঠক। কারণ পাঠকের কাছে সবার দরজা সবসময় উম্মুক্ত।

আপনি যদি অন্যান্য নিউজ সাইটের চেয়ে আপনার সাইটটিকে ব্যতিক্রম রাখতে চান তাহলে নিচের আলোচ্য বিষয়গুলোকে গুরুত্ব দিন।

অপটিমাইজ ইমেজেস
মিনিমাইজ পেজ কোড
কিছু রিডাইরেক্ট ব্যবহার করুন বা ব্যবহারই করলেন না
নিউজ সাইটের হোস্টিং কোম্পানী হওয়া চাই ফাস্ট সার্ভার
পোস্টগুলো যাতে দ্রুত মোবাইলে দেখা যায় সেজন্য ব্যবস্থা নিন।
সাইটের ডেস্ক টপ স্পিড চেক করুন, সমস্যা থাকলে সমাধান করে নিন।
নিউজ পোর্টাল সাইট হতে হবে মোবাইল ফ্রেন্ডলি

 

মোবাইলে নিউজ পড়তে অনেক স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করে মানুষ।ছবি ও লেখা ঝকঝকে চকচকে।মানুষ পড়ে আর লাইক দেয়।গুগলও মোবাইল নিউজ আগে ইন্ডেক্সিং করে, পরে ডেস্কটপ।আপনার নিউজ সাইটটি যদি পাঠকদের কাছে বিরক্তিকর হয়, তবে কখনও আশা করবেন না,উচ্চতর র্যাং কিং পাবার বিষয়ে। আপনার সাইট পেছনের সারিতে পড়েই থাকবে।

এটা বলে রাখা প্রয়োজন যে, আপনার সাইটকে মোবাইল ফ্রেন্ডলি করা খুব কষ্টকর বিষয় নয়।ছোট্ট স্ক্রিনে যাতে ভালভাবে দ্রুত দেখা যায় সে ব্যবস্থাই করতে হবে।

যেখানে থাকবে-

মোবাইল রেসপনসিভ ডিজাইন
ব্যবহার করতে হবে ১৬পয়েন্ট বা তার বড় ফন্ট সাইজ
বিব্রতকর কোন পপআপ বিজ্ঞাপন থাকতে পারবে না।
প্যারাগ্রাফ ও লাইন,ছবি,বাটন ও পেইজের অন্যান্য বাটনের মধ্যে নির্দিষ্ট স্পেস থাকতে হবে।
সবকিছু যাতে দ্রুত লোড হয়,সেটা নিশ্চিত করতে হবে।

 

ফিক্স করুন টেকনিক্যাল ত্রুটি

প্রতিদিন আপনি কতটি পোস্ট পাবলিশ বা অনএয়ার করতে চান আপনার নিউজ সাইটে সেটির একটি পরিকল্পনা রাখুন।কারণ নিউজ সাইটগুলো সাধারণত জনপ্রিয় হয়,যারা প্রতিযোগিতা করে ফাস্ট নিউজ সার্ভিস দেয়।বেশিরভাগ সময়ে ফাস্ট নিউজ বা ব্রেকিং নিউজ দিতে না পারলে ভিজিটর বা পাঠক হারাবার রিস্ক থাকে।সাইটের যদি টেকনিক্যাল ত্রুটি থাকে সে সব সারাবার দ্রুত ব্যবস্থা নিন।
অন্ততপক্ষে সপ্তাহে একবার সাইটের এরর অডিট করুন।যদি কিছু পাওয়া যায় তা ফিক্সড করুন।

সংশ্লিষ্ট লিংক তৈরি করুন
অন্যান্য সাইটেরমত আপনার নিউজ পোর্টালেরও দরকার প্রচুর ভাল ব্যাক লিংক।

কোথায় পাওয়া যাবে এসব ?

 ব্লগ: ব্লগে লেখালেখি হতে পারে ব্যাকলিংক পাবার বড় উৎস।নিজের হোক বা বন্ধুদের হোক বা অপরিচিতি কারো ব্লগে অতিথি পোস্ট লেখা যেতে পারে ।তবে স্পামিং করে নয়। ভাল ভাল উপদেশমূলক মন্তব্য লিখে কমেন্টস দিতে পারেন।

কন্টেন্ট ডিরেক্টরি : আপনি আপনার পোস্টগুলো বিশেষত ডিরেক্টরিগুলোতে সাবমিট করতে পারেন। এই সব ডিরেক্টরিগুলো উচ্চতর ডোমেইন অথরিটি সম্পন্ন হয়। এখান থেকে পাওয়া ব্যাকলিংক আপনার পোস্টকে বুস্ট পেতে সহায়তা দেবে। খুঁজে দেখুন কনটেন্ট সাবমিশন টুলস।

ফোরাম: অবশ্য ফোরামগুলোতে পোস্ট সংক্রান্ত আলাদা কোন সেকশান থাকে না।ফোরামে এক বা দুটির বেশি পোস্ট সাবমিট করবেন না। প্রতিসপ্তাহে ব্যাকলিংকের কী অবস্থা চেক করতে ভুলবেন না।

মনে রাখবেন গুগল আশা করে আপনার নিউজ পোর্টালের ২০% লিংক নো ফলো হবে যা দেখতে স্বাভাবিক ওয়েব সাইটের মত মনে হবে।

০৫.সোশ্যাল মিডিয়ার ব্যবহার:

নিউজ পোর্টাল চালাবেন কিন্ত সোশ্যাল মিডিয়ায় সে নিউজ যাবে না ? সেটা কীভাবে সম্ভব। আজকাল যে কোন সাইটের নিউজ বা ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় না গেলে ভাইরাল হয় না।

সোশ্যাল প্লাট ফরমগুলো নিউজ ফ্রেন্ডলি হয়।নিউজ পোর্টাল ও সোশ্যাল মিডিয়া একে অপরের পরিপূরক বলা যায়। সব সময় ,পাঠকের সময় বুঝে, যখন মানুষ সোশ্যাল মিডিয়ায় বেশি সময় দেন তখনই কিন্ত আপনার জনপ্রিয় পাবলিশড পোস্টগুলো সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার হওয়া উচিত।

কোন সোশ্যাল মিডিয়ায় অন্য জনপ্রিয় নিউজ পোর্টালগুলো কিভাবে নিউজ পোস্ট করে সেটা অনুসরণ করুন।
সব সোশ্যাল মিডিয়াকে নিউজ ও ভিউজ শেয়ারের জন্য ব্যবহার করুন।

কতটি সোশ্যাল মিডিয়ার নাম আপনার মাথায় আছে ? নিউজ এবং আর্টিকেলগুলো তার চেয়ে বেশি বেশি প্লাটফরমে শেয়ার করার চেষ্টা করুন। ফেসবুক,টুইটার এবং ইউটিউব সবার জন্য।আপনি তার চেয়ে বেশি কি করছেন? ভাবুন।

নেটওয়ার্কিং : তৈরি করুন বিভিন্ন গ্রুপ, পেজ।যুক্ত করুন হাজার হাজার সদস্যকে।নেটওয়ার্ক বাড়ান। সব জায়গায় আপনার সাইটের প্রতিনিধিত্ব রাখতে হবে। যে সব নিউজ পোর্টালে সোশ্যাল মিডিয়া থেকে ২৫%থেকে ৫০% ভিজিটর আসে নিউজ সাইটে তারা ভাল র্যাং কিং পায়।
আপনার নিউজ পোস্ট যত বেশি শেয়ার হবে, লাইক পড়বে ততবেশি লাভ সাইটের জন্য। দিন দিন কৌশল পরিবর্তন করে নতুন নতুন পাঠক তৈরির চেষ্ঠা করতে হবে।

লক্ষ করলে দেখতে পাবেন, কোন কোন পোর্টালের নিউজ সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট দেয়ার সাথে সাথে শত শত লাইক পাওয়া শুরু করে, তারা কোন কৌশলে আগাচ্ছে সেটা ফলো করার চেষ্ঠা করুন।
চেক করে নিন-আপনার প্রতিযোগিদের কে কে কিভাবে সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে মার্কেট ধরে আছে।

কোন সময় সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট দেয়া উচিত ?

একজন পাঠক সারাদিনতো সোশ্যাল মিডিয়া নিয়ে পরে থাকে না।আপনি যদি যখনতখন পোস্ট দিতে থাকেন তাহলে আপনার গুরুত্বপূর্ণ পোস্টগুলো পাঠকের সামনে হাজার হাজার পোস্ট এর ভিড়ে চাপা পড়ে যাবে।পাঠকের নজরে আসবে না।
ভেবে দেখুন কোন সময় মানুষ সোশ্যাল মিডিয়ায় বেশি নিউজ পড়ে।
সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারের সময়: সেরা দিন ও সময়: প্রতিদিন সকালে অফিসে যেতে ৮টা-৯টা,কাজের ফাকে ১১-১১.৩০, বেলা ১.৩০-২.০০টা। বিকেল ৫টার পর। যারা বাড়িতে থাকেন,তাদের জন্য খাওয়া, নামাজ দোয়া, পড়ার সময় ছাড়া সর্বক্ষণ।বিশেষত অবসরে থাকা ব্যক্তিগন।
শুক্রবার দুপুরের পর থেকে রাত ১১টা। বেশিরভাগ মানুষ বাসায় সময় কাটান।সেরা দিন শনিবার বলা যায়।
গুগল অ্যানালাইটিক্সে দেখে নেবেন কোন সময় মানুষ বেশি ভিজিট করে আপনার সাইট।সে অনুযায়ি সোশ্যাল মিডিয়ায় নিউজ পোস্ট করবেন।

সোশ্যাল পেইজের সাথে নিউজ পোর্টালের লিংক:

এতে পাঠকের খুব সুবিধা হয় যে,তারা সহজে নিউজ শেয়ার করতে পারে। নিউজ পোর্টালের উপরের দিকে কিংবা নিচে ফুটার লিংকে সোশ্যাল পেজগুলো এবং মিডিয়ার লিংক অবশ্যই দেবেন। আপনার সাইটে যদি সোশ্যাল মিডিয়া আইকন দেখা না যায়,তাহলে পাঠক শেয়ার না করেই ফিরে যায়। পাঠক পরে পড়তে চাইলে কোন পোস্ট আগে শেয়ার করে নেবে।

এক ক্লিকে যাতে শেয়ার করা যায় সে রকম বাটন সেট করুন।

০৬. গুগল নিউজের পাবলিশার হোন:

গুগলে র‌্যাংকিং পাওয়া অনেক বড় বিজয়।যখন আপনার নিউজ পোর্টালের কোন নিউজ গুগল নিউজে শো করে,তখন বুঝতে হবে সে পোস্টটা পাঠকের কাছে ও সার্চ ইঞ্জিনের নিকট অধিক গুরুত্বপূর্ণ। সবকিছু ঠিক থাকলে গুগল বেশি শেয়ার হওয়া নিউজ গুগল নিউজে শো করে থাকে। অবশ্য এ জন্য ২শতাধিক ফ্যাক্টর কাজ করে। যেগুলো গুগল কখনও প্রকাশ করে না। গুগল নিউজ এর পাঠক প্রতিমাসে গড়ে ৫৩কোটি ৫০লাখ। বাংলা ভাষায় উন্নত কোয়ালিটির ইউনিক নিউজ পোস্ট করে আপনিও আপনার নিউজ পোর্টালের ভিজিটর পেতে পারেন গুগল নিউজ থেকে।

বাংলা নিউজ, বাংলাভাষার নিউজ নিয়ে রীতিমত প্রতিযোগিতা চলছে গুগল নিউজে।ভারতীয় বাংলা সাইট, ইংরেজি সাইটগুলোর বাংলা ভার্সন, বিবিসি বাংলা,পার্স টুডে, বিভিন্ন দেশের রেডিও সংস্থা যারা বাংলা ভাষায় সংবাদ প্রচার করে তারাও বাংলা নিউজ পোর্টাল চালান।নিয়মিত আপডেট করেন। বুঝেন এবার বাংলা নিউজ পোর্টালগুলোর প্রতিযোগিতা শুধু স্থানীয় পর্যায়ে নেই।

গুগল নিউজের জনপ্রিয় কিছু উৎস হল: Somoy News,DW(Bangla),VOA-Bangla, Jamuna Television, bnanews24, Oneindia Bengali,Prothomalo dot com,Gizbot Bengali, ABPAnanda, Eisamay, News18বাংলা, bnanews24, Jago news, Ittefaq dot com, Etc.

গুগল নিউজে আপনার নিউজ পোর্টালের নিউজ ধরার জন্য/দেখানোর জন্য নিচের পরামর্শগুলো বিবেচনা করুন :

০১. গুগল নিউজ কোন নিউজগুলোকে অগ্রাধিকার দিচ্ছে অনুসরণ করুন(জনপ্রিয় কিছু উৎস)

০২. আপনার নিউজ পোর্টালকে গুগল নিউজে সাবমিট করুন।ভেরিফাই করুন ওনারশিপ,সে সাথে সাইটকে গুগল নিউজের সাথে অপটিমাইজ করুন। এবং নিচের কাজ গুলো করুন।

০৩. বর্ণনামূলক ইউআরএল: গুগল নিউজের অধিকাংশ পোস্ট ইউআরএল পড়ে সহজে বুঝা যায়,পোস্ট কী সম্পর্কীয়।

০৪. পোস্টের লেখায় কোন ভুল থাকতে পারবে না। বাক্য,ব্যাকরণগত ও বানান ভুল পরিহার করে শুদ্ধভাবে পোস্ট লিখতে হবে।

০৫. বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকার স্থানীয় কোন ঘটনা নিয়ে বাংলাদেশের কোন নিউজ পোর্টাল নিউজ পোস্ট দিল। গুগল নিউজ সেটা দেখাবে। একই ঘটনা নিয়ে ভারতীয় একটি নিউজ পোর্টাল নিউজ পোস্ট করলেও সেটা কম গুরুত্ব পাবে।কারণ গুগল নিউজ লোকাল এইও ফ্রেন্ডলি।

০৬. ছবি ও ভিডিও ব্যবহার করুন: পোস্টে সবচেয়ে ভাল মানের ছবি, পোস্টের ভেতরের অতিরিক্ত ছবি এবং ভিডিও আপনার নিউজ পোস্টকে বেশি অগ্রাধিকার দেবে।

০৭. মোবাইল ফ্রেন্ডলি হতে হবে : আপনার নিউজ সাইট যদি মোবাইল ফ্রেন্ডলি হয়,পোস্টও যদি সোনায় সোহাগা, সার্চ ইঞ্জন জায়ান্ট গুগল সবচেয়ে বেশি র্যাং কিংয়ে নিতে সমর্থন দেবে। মনে রাখা দরকার গুগল প্রথমেই মোবাইল ইন্ডেক্সিং করে।

গুগলে চেক করে নিন আপনার নিউজ পোর্টাল মোবাইল ফ্রেন্ডলি  কি না

Google’s Mobile Website Speed Testing Tool · Google’s Mobile Friendly Test Mobile SEO Page Analyzer

০৮. দ্রুত লোডিং স্পিড: আপনার সাইট যদি মোবাইল ফোন ও ডেস্কটপে দ্রুত না খুলে সে ক্ষেত্রে আপনার সাইট গুগল নিউজে পাত্তা পাবে না।যত তাড়াতাড়ি সাইট লোড হবে ততবেশি পাঠক পাবার সুযোগ থাকে।সাইট খুলতে দেরি করলে,পাঠক বিরক্তি বোধ করেন।নিচের পয়েন্টগুলো বিবেচনা করতে পারেন লোডটাইম কমানোর জন্য।

০৯. ত্বরিত মোবাইল পেজ( Accelerated Mobile Pages )। এএমপি একটি গুগল পরিচালিত প্রকল্প, তাই তারা স্বাভাবিকভাবেই এটি ব্যবহার করছে এমন সাইট অনুমোদন করে। প্রকৃতপক্ষে, গুগল নিউজে অনেক নিউজ পোস্ট AMP তে তৈরি করা হয়।

১০.গুগল ওয়েব মাস্টার গাইডলাইন অনুসরণ করুন: কথায় বলে,আপনি যখন ঢাকায়,তখন ঢাকাইয়াদের মত চলার চেষ্টা করবেন। গুগলের নিয়ম কানুন মেনে চলুন,সম্মান দিন তাহলে প্রতি উত্তরে গুগলও আপনাকে সম্মান জানাবে।

১১. গুগল কনটেন্ট লিসি অনুসরণ ও মেনে চলুন।গুগল নিউজ কিছু কিছু ক্ষেত্রে গ্রাফিক্স, হিংসাত্বক,অবৈধ পোস্ট একেবারে নিষিদ্ধ। বিপজ্জনক ক্রিয়াকলাপ এবং অবৈধ ক্রিয়াকলাপগুলিকে প্রচার বা সহায়তা করে এমন সামগ্রীর অনুমতি দেয় না। এর মধ্যে রয়েছে আত্মহত্যা,স্ব-ক্ষতি, যেমন স্ব-বিচ্ছেদ, খাওয়ার ব্যাধি, বা মাদকের অপব্যবহার।গুগল সহিংসতা, হুমকি সংগঠিত করতে বা হিংসাত্মক সংগঠনগুলিকে সমর্থন করার জন্য ব্যবহৃত কনটেন্ট বা পোস্ট প্রকাশের অনুমতিও দেয় না না।

 আরও জানতে গুগল কনটেন্ট পলিসি পড়ুন………………..

A. Google Content policies

১২. সাব ক্যাটাগরি: নিউজ পোস্টসমূহ রাজনীতি/খেলা/বিশ্ব/ এ রকম সাব ক্যাটাগরিতে সাজাতে হবে। আপনার নিউজ পোস্টের ইউআরএল যেমন-https://dainikprothomalo.com/news/sharemarket থাকতে হবে।

১৩. গুগল নিউজ পোস্টের জন্য ইউনিক সাইট ম্যাপ তৈরি করুন।গুগল এ ব্যাপারে পরিষ্কার দিক নির্দেশনা দিয়েছে। যেটি আপনি দেখতে পারেন এখানে……

১৪. উপযুক্ত পোস্ট কাঠামোগত ডেটা ব্যবহার করুন। Schema.org- এর প্রতিটি ধরণের বিষয়বস্তুর জন্য মার্কআপ রয়েছে এবং নিউজ পোস্টও এর ব্যতিক্রম নয়। প্রতিটি পোস্টে স্নিপেট কোডের সাহায্যে, গুগল সার্চ ফলাফলে আপনার পোস্টের প্রথম অনুচ্ছেদ এবং ছবি প্রদর্শিত হতে পারে।
এটি একটি কীওয়ার্ডের প্রথম অর্গানিক ফলাফলের উপরে এবং প্রায়শই এমনকি গুগল বিজ্ঞাপনের উপরেও দেখাতে পারে ।

আরও পড়ুন : ভাইরাল পোস্ট লিখবেন যেভাবে

গুগল নিউজ এ স্থান পাওয়া সৌভাগ্যের বিষয়

গুগল নিউজ আপনার নিউজ পোর্টাল সাইট জমা দেওয়ার সাথে সাথেই অন্তর্ভুক্তির জন্য পর্যালোচনা শুরু করে। উপরের তালিকার বেশিরভাগ পদক্ষেপ আপনার সাইটকে গুগল নিউজের পাবলিশার হিসেবে আরও কার্যকর প্রার্থী করে তুলবে। পরামর্শগুলো মেনে নিউজ পোর্টাল পরিচালনা করুন, গুগল নিউজ আপনাকে স্বাগত জানাতে বাধ্য হবে। আপনি যখন গুগল নিউজে আপনার নিউজ পোর্টালের নিউজ দেখবেন, স্বভাবতই খুব আনন্দ অনুভব করবেন।কারণ গুগল নিউজ এ স্থান পাওয়া সৌভাগ্যের বিষয়। সবাইকে মানতে হবে নিউজ পোর্টাল এসইও করে আপনিও সফল।

Leave A Reply

Your email address will not be published.